শরীরের কোন ব্যথায় কেমন পরিচর্যা? জেনে নিন বিস্তারিত

%e0%a6%ac%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%a5%e0%a6%be-2-768x462

শরীরের এখানে-সেখানে ব্যথা হতেই পারে। বাড়িতে এমন ঘটনা ঘটলে কেউ গরম পানি নিয়ে ছুটে আসে; কেউ আসে বরফের টুকরা নিয়ে।আসলে ব্যথা কমাতে কোনটা দিতে হয়? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দুটোই; তবে ব্যথার ধরন বুঝে—

Loading...

আরথ্রাইটিসে দরকার উত্তাপ
দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এবং ক্রনিক ব্যথার জন্য গরম অনেক উপকারী। সাধারণত যেসব ব্যথা ছয় সপ্তাহের বেশি সময় ধরে যন্ত্রণা দিচ্ছে, তাতে তাপ প্রয়োগ করতে হয়। দেহের হাড়ের সংযোগস্থলগুলোতে তীব্র ব্যথা সৃষ্টি করে আরথ্রাইটিস। এ জন্য দরকার ‘গরম চিকিৎসা’। এসব ব্যথায় তাপ দিলে পেশি শিথিল হয়।
মাথাব্যথায় বরফ

মাত্র ঘটেছে, এমন আঘাতে ঠাণ্ডা বেশ উপকারী। আবার যে আঘাতে কিছুক্ষণের জন্য বোধশক্তি হারিয়ে যায়, সেখানেও বরফ দিন। মাথাব্যথার মতো যন্ত্রণায় ওষুধের মতো কাজ করে বরফের শীতল স্পর্শ।

নেক স্পাজমে তাপ
অনেক সময় মানুষ এই ভুলটি করে। ঘাড়ে ব্যথা হলে একটু আরাম পেতে কোল্ড প্যাক ব্যবহার করে। কিন্তু এটা ভুল পদ্ধতি। এমনিতেই ঘাড়ে ব্যথা হয়; যাকে বলা হয় নেক স্পাজম। এ সময় হটপ্যাক বা গরম শেকের মাধ্যমে ব্যথা কমতে পারে।

স্ট্রেইনে ঠাণ্ডা-গরম দুটোই
পেশিতে প্রচণ্ড টান খেলে প্রাথমিকভাবে ব্যথা কমাতে ঠাণ্ডা কিছু লাগাতে হয়। এর প্রয়োগে ব্যথা অনুভূত হবে না। কিন্তু ব্যথা কমার পরও পেশি অনমনীয় অবস্থায় থাকতে পারে। সে ক্ষেত্রে আবার দরকার তাপ।

স্পেইন্সে ঠাণ্ডা-গরম দুটোই
দেহের সংযোগস্থলে লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেলে তীব্র যন্ত্রণা শুরু হয়। এ থেকে রেহাই পেতে প্রথমে বরফের থেরাপি নিন। এবার হটপ্যাক নিন পেশিকে শিথিল করতে।

টেন্ডিনিটিসে বরফ
এটা এমন এক ব্যথা যা পেশি ও হাড় সংযোগকারী টিস্যু প্রদাহের কারণে হয়। এ থেকে মুক্তি পেতে অবশ্যই বরফ ব্যবহার করতে হবে।

টেন্ডিনোসিসে গরম
কোষে আঘাত পেলে বা কোষ ক্ষতিগ্রস্ত হলে টেন্ডিনোসিস দেখা দেয়। এটি অনেকটা অন্যান্য ক্রনিক অবস্থার মতোই। এই ব্যথা অবশ্যই উত্তাপের মাধ্যমে চিকিৎসা দিতে হবে।